ব্লগ নাকি ওয়ার্ডপ্রেস, কোনটি ভালো?

বিনা খরচে তৈরী করুন ওয়েব সাইট, ব্লগার সাইট, ব্লগার সাইট ডিজাইন, ভালো বাংলা  ব্লগ, কিভাবে ব্লগ সাইট বানাব, বাংলায় ব্লগিং, ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায,  ওয়েবসাইট তৈরি করে আয়,
ব্লগ নাকি ওয়ার্ডপ্রেস, কোনটি ভালো?

আজকের পোস্ট হচ্ছে যারা ব্লগার আছেন বা নতুন যারা ব্লগিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু
করবেন বলে ভাবছেন তাদের জন্য এই পোস্ট খুব গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে । আজকের
পোষ্টে আপনাদের জানাবো কোনটা Better হবে আপনাদের জন্য Blogger or WordPress…?
এই দুই সাইটের কোনটা কি সুবিধা অসুবিধা আজকে আমি আপনাদের জানানোর চেষ্টা করব

১। Ownership বা মালিকানাঃ-

(ক) ব্লগারের মালিক কে…?

ব্লগারের সব কিছুর মালিক গুগল । ব্লগার একটি গুগলের Products. ব্লগারে আপনি একটা
সাইট বানিয়ে দেখান থেকে ইনকাম করতে পারবেন কিন্তু সেটার মালিক আপনি হতে পারবেন না
। গুগল চাইলে আপনার সাইটেকে যখন খুশি তখন band করে দিতে পারে ।

(খ) ওয়ার্ডপ্রেস এর মালিক কে…?

ওয়ার্ডপ্রেস এর প্রত্যেকটা জিনিসের মালিক হচ্ছেন আপনি । ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি যে
Data স্টোর করছেন তার জন্য আপনাকে Hosting কিনতে হচ্ছে । তার মানে আপনার জায়গাতে
আপনি যা খুশি সেটাই করতে পারবেন । এবং আপনাকে ডোমেইন কিনতে হচ্ছে । আপনি চাইলে
বিভিন্ন প্লাগিন ইউজ করতে পারেন । থিম তো নিজের ব্যাবহার করতে হচ্ছেই ।
সেই ক্ষেত্রে বলায় চলে Ownership বা মালিকানার দিক দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস এগিয়ে ।
ওয়ার্ডপ্রেস এর সব কিছুর মালিক আপনি নিজে ।

২। Customization কাস্টমাইজেশন এর দিক দিয়ে কোনটা এগিয়ে Blogger or WordPress:-

(ক) ব্লগারে কাস্টমাইজঃ-

ব্লগারে থেকে ডিজাইনটা মোটামোটি পযায়ে করা যায় খুব ভালো যে করা যায় সেটা না ।
ব্লগারে কাস্টমাইজ কিছু লিমিটেড আছে এর বাহিরে কাস্টমাইজ করতে পারবেন না । শুধু
মাত্র HTML & CSS এডিট করে কাস্টমাইজ করার সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে । মনের মতো
কাস্টমাইজ করতে পারবেন না । ব্লগারে ডিজাইনটা একদম খারাপ না মোটামোটি ভালো ।
See also  মৃত্যুর পর ফেরেশতারা লাশের সাথে কি করে । মৃত্যুর পর আত্মা কোথায় যায় । Where the human soul goes after death

(খ) ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজঃ-

ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি জায়গা আপনি আপনার ইচ্ছা মত ডিজাইন করতে পারবেন । কারন
এখানকার মালিক হচ্ছেন আপনি । আপনি নিজের ইচ্ছা মতো Coding করে ডিজাইন করতে পারছেন
। বিভিন্ন থিম ব্যাবহার করতে পারছেন । হাজার হাজার প্লাগিন ইউজ করার সুযোগ
পাচ্ছেন ।

৩। Control panel কন্ট্রোল প্যানেল:-

ব্লগারে কন্ট্রোল আপনি নিজে করতে পারবেন না । আগেই বলেছি ব্লগার হচ্ছে গুগলের
Products. সেখানে আপনার কিছুই করার থাকবে না । কিন্তু
ওয়ার্ডপ্রেসের ক্ষেত্রে সম্পুন্ন বিপরীত এখনাকার Total মালিক হচ্ছেন আপনি। তাই
আপনি যখন যা খুশি বন্ধ করতে পারছেন , আবার চালু করতে পারছেন । সব কিছু নিজের
ইচ্ছা মতো করতে পারবেন । কন্ট্রোলের ব্যাপারে ব্লগার এগিয়ে নাই ওয়ার্ডপ্রেস
এগিয়ে আছে ওটার মালিক আপনি নিজেই ।

৪ । Security বা নিরাপত্তায় ব্লগার নাকি ওয়ার্ডপ্রেসঃ-

আপনি একটা ওয়েবসাইট অনলাইনে বানাবেন সেটার সিকিউরিটি অব্যশয় দরকার । কেউ যেন সহজে
সাইট হ্যাক করতে না পারে ।
সিকিউরিটির দিক দিয়ে ব্লগার এগিয়ে আছে । কারণ ব্লগার হচ্ছে গুগলের প্রোডাক্ট,
সিকিউরিটি একমাত্র গুগল দিবে । আপনাকে শুধু ইমেইল আর পাসওয়ার্ড যেন কেউ না জানে
এবং ফরওয়ার্ড করতে না পারে সেই বিষয়ে আপনাকে লক্ষ রাখতে হবে ।
ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি উন্মুক্ত প্লাটফম । এখানে আপনাকে কেউ সিকিউরিটি দিবে না
। সিকিউরিটি যদি ব্লগারের মতো পেতে চান তাহলে অব্যশ্য আপনাকে টাকা দিয়ে কিনে নিতে
হবে । বিভিন্ন ধরনের সিকিউরিটি প্লাগিন আছে সেগুলো পে করে কিনে নিতে হবে ।
একটা কথা মনে রাখবেন ব্লগার হচ্ছে একদম ফ্রী আর ওয়ার্ডপ্রেসে ধাপে ধাপে আপনাকে
পেমেন্ট করতে হবে ।
সিকিউরিটির দিক দিয়ে ব্লগার এগিয়ে আছে এখানে একদম ফ্রী সিকিউরিটি পাওয়া যায় ।
ব্লগারের মতো যদি ওয়ার্ডপ্রেসে সিকিউরিটি পেতে চান তাহলে অব্যশয় পে করে Security
নিতে হবে ।
See also  বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আমন্ত্রণ পত্র

৫। বিভিন্ন ধরনের প্লাগিন বা অটো টুলঃ-

অটো টুল মানে হচ্ছেঃ বিভিন্ন ধরনের প্লাগিন বা অটো টুল যা আপনার কাজকে সহজ করার
জন্য কিছু প্লাগিন আছে যা আপনার অনুপস্হিতিতে অটোম্যাটিক ওয়েবসাইটের জন্য কাজ করে
যাবে যেমন backlink তৈরি করে যাবে , seo করে দিবে, সিকিউরিটি দিয়ে যাবে, এটাকে
বলে অটো টুল বা প্লাগিন । ওয়ার্ডপ্রেসে হাজারো প্লাগিন আছে সেগুলো আপনাকে পে করে
করে ইউজ করতে হবে । এবং অনেক প্লাগিন আছে সেগুলো ফ্রী , আমার মনে হয় পে করে ইউজ
করা ভালো ।
ব্লগারে আপনি কোন ধরনের প্লাগিন বা অটো টুল ইউজ করতে পারবেন না । শুধু ডিফল্ড
ব্লগার ছাড়া কিছু ছাড়া কিছু ব্যাবহার করতে পারবেন না ।

৬। ফিউচার প্লান কিঃ-

অনলাইনে যত ধরনের সফল ব্লগার কে দেখবেন তারা যদি ব্লগার দিয়েও শুরু করে পরবর্তীতে
ওয়ার্ডপ্রেসে চলে গেছে । ওয়ার্ডপ্রেসে অনেক সুযোগ সুবিধা আছে যা ব্লগারে পাবেন
না ।ফিউচার প্লান বলতে এটাই বুঝাতে চাচ্ছি যে আপনি যখন ব্লগার থেকে ওয়ার্ডপ্রেসে
মুভ করবেন । আপনার সম্পূন্ন ব্লগার সাইটিকে ওয়ার্ডপ্রেসে নিয়ে গিয়ে বসাতে পারবেন
। কিন্তু আপনার ব্লগারে যেভাবে সাজিয়ে রেখেছেন যখন আপনি ওয়ার্ডপ্রেসে নিয়ে যাবেন
তখন কিন্তু সেই রকম আর কাস্টমাইজ পাবেন না । সব কিছু ভেঙ্গে চুরে খান খান হয়ে
যাবে । এবং আপনি যে seo করেছিলেন সব নষ্ট হয়ে যাবে আবার শুরু থেকে seo করতে হবে ।
আপনি যে ট্যাগ seo করেছিলেন ১০০% সব ঠিক মতো যাবে না । সেই জন্য আপনি যদি সফল
ব্লগার হতে চান তাহলে শুরু থেকে কিছু বেশি টাকা খরচ ওয়ার্ডপ্রেসে কাজ শুরু করেন
। ব্লগার সাইট যে একেবারে খারাপ সেটা না । আপনার অস্ত্র হচ্ছে কন্টেন্ট ।
কন্টেন্ট যদি ভালো না হয় তাহলে ওয়ার্ডপ্রেসে গিয়েও কিছুই করতে পারবেন না ।
See also  সহজ নিয়মে এসএসসি রেজাল্ট দেখার নিয়ম ২০২৩

৭। এডসেন্সঃ-

অনেকেই বলে যে ব্লগারে তাড়াতাড়ি এডসেন্স পাওয়া যায় এটা একটা ভুল ধারনা । কিন্তু
ব্লগারে এডসেন্স সেইভ থাকে । ২০২১ সালে এডসেন্স পাওয়া খুব কঠিন হয়ে গেছে ।
কন্টেন্ট এর উপর নিভর করে এডসেন্স । কন্টেন ভালো না হলে Adsens পাওয়া খুব কঠিন
হয়ে গেছে । সেই জন্য আমি বলবো ব্লগার আর ওয়ার্ডপ্রেস দুটার মধ্যে আপনি যেটাই
শুরু করেণ না কেন । কন্টেন্ট দিকে নজর দিতে হবে । গুগল যদি না চায় ওয়ার্ডপ্রেসে
গিয়ে আপনি সফল হতে পারবেন না । সব কিছু গুগলের উপর নির্ভর করে ।
সর্বশেষে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন আপনি কোনটায় কাজ করতে চান ওয়ার্ডপ্রেসে নাকি
ব্লগার । আমি কিন্তু ব্লগারে কাজ করছি । আমার আরও সাইট আছে ইনশাআল্লাহ অল্প হলেও
ভালো ইনকাম হয় ।
সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

tag…
বিনা খরচে তৈরী করুন ওয়েব সাইট, ব্লগার সাইট, ব্লগার সাইট ডিজাইন, ভালো বাংলা
ব্লগ, কিভাবে ব্লগ সাইট বানাব, বাংলায় ব্লগিং, ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায,
ওয়েবসাইট তৈরি করে আয়,

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *